ল্যাক ক্যানিনাম ওষুধটি সম্পর্কে জানুন – খুবই দরকারি ওষুধ

Admin21
October 30, 2021 6:20 am
Link Copied!

ল্যাক ক্যানিনাম হোমিও ওষুধঃ

কুকুরীর দুগ্ধ থেকে পেয়েছি আমরা ল্যাক ক্যানিনাম। কিন্তুু এই ঔষধ আবিষ্কার হবার সময় সারা জগৎ হাততালি দিয়ে হেসে উঠল। হৈ হৈ করে বিপক্ষদল আকাশ বাতাস ভরে দিল।

কিন্তুু আমরা তাদের আরও তাজ্জব বানিয়ে দিলাম। তারা বলেছিল যে, বিজ্ঞান বলে তারা নাকি শুনেছে কুকুরীর দুধ থেকে বৈজ্ঞানিক প্রক্রিয়াতে আমরা ঔষধ তৈরি করতে পারব না। এমনি কথা তারা আমাদের ল্যাকেসিসের বেলায়ও বলেছিলো। কিন্তুু সেবারো হারলেও এবারো তারা হারবে না। তাদের বিজ্ঞ বৈজ্ঞানিকরা নাকি একথা জোর করে বলেছেন।

এবারো আমরা কিন্তুু আরও এক ধাপ এগিয়ে গেলাম। কয়েকটি অতি কঠিন গলক্ষত রোগীর চিকিৎসায় যেখানে তারা নিরাশ হচ্ছিল । সেখানে আমরা গিয়ে যেই জানলাম রোগীর যন্ত্রণা– কেবলই তা পার্শ্ব পরিবর্তন করছে। অমনি বিনা বাক্যব্যয়ে আমরা ১০০০, ১০ হাজার বা লক্ষ শক্তির এক এক ফোঁটা কুকুরীর দুধ দিতে লাগলাম, আর তাদের ত্বরায় যমদ্বার থেকে ফিরিয়ে আনলাম।

আবার কতকগুলি মজার বাতের রোগী পেলাম। তারা বলল, তাদের বাত আজ যদি হয় বাঁ হাতে কাল সেটা ভালো হয়ে হবে ডান পায়ে, আবার সেটা পরশু আসবে অন্য হাতে– অমনি পার্শ্বপরিবর্তনশীল অস্থিরগতি ব্যথা( erratic pain changing sider)। আমাদের সঙ্গে যে বিখ্যাত অ্যালোপ্যাথরা এসেছিলেন তারা ত ভেবেই অস্থির! এ কি লক্ষণ রে বাবা! তারা বললেন আমাদের, এটাকে যে আপনারা কুকুরীর দুধের বিশেষ লক্ষণ বলেন, তা হলে তা দিচ্ছেন না কেন? পরীক্ষা হোক না এবার দেখি! তারা মনে করেছিলেন, এবারো আমাদের কথা মিথ্যে হবেই।

আমরা দিলাম উচ্চতম শক্তির কুকুরীর দুধ ক্ষুদ্রতম মাত্রায়। ফলে বাতে পঙ্গু রোগী ভালো হয়ে নিউ ক্যাসলের কয়লা খনিতে কাজ করতে চলে গেল।

ডাঃ রাজন শংকরণ মহোদয়  ঔষধটার বর্ণনায় খুব সাধারণ উদাহরণ দিয়ে বুঝিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ল্যাক ক্যানের মূলকথা হচ্ছে আমি যথেষ্ট  ভাল বা সুন্দরী নই। এজন্য নিজের ওপরই ঘেন্না ধরে যায়। আমি মোটা হয়ে পড়েছি এবং দেখতেও বাজে লাগছে। এছাড়া ততোটা চালাকও নই।

কথাবার্তাতেও বোকামী ভাব আছে। এটাকেই বলা হয়েছে Contemptous of self নিজের ওপর ঘেন্না জন্মানো। Delusion she is looked down upon নিজেকে ছোট করে দেখা।

ক্রমান্বয়ে তার মনের দুঃখগুলো নীরবে অনেক বড় আকার ধারণ করে এবং আত্মবিশ্বাসের অভাব বোধ “দুঃখ বোধ” জীবনকে ভারবোধ” লক্ষণগুলো তার মধ্যে চলে আসে। এই লক্ষণগুলোকে সুন্দর করে সাজাতে পারলেই, আপনি একটা লক্ষ্যে পৌছাতে সক্ষম হবেন। অন্ততঃ একটা mental state তৈরী করতে পারবেন।

গুরুত্বপূর্ণ লক্ষণঃ
পার্শ্ব পরিবর্তন করে লক্ষণটা ল্যাক ক্যানের একটা গুরুত্বপূর্ণ লক্ষণ বটে। সকল শব্দই যেন দূর হতে ভেসে আসছে, এমন বোধ হয়। ঋতুস্রাবের আরম্ভ হতে শেষ পর্যন্ত গলবেদনা। স্তন দুগ্ধ শুষ্ক করবার জন্য পালস এবং ল্যাক ক্যান প্রয়োজন হয়।

ল্যাক ক্যান নোনতা পছন্দ করে। এই লক্ষণে প্রথমশ্রেণীর অবস্থান। এখানে দুধ, মরিচ, মসলাদার খাদ্য আকাংখা করে বর্ণিত রয়েছে। ঠাণ্ডায় উপশম, কাপড়চোপড় বা আচ্ছাদনে বৃদ্ধি রয়েছে। গোসলে উপশম। খোলাবাতাসে উপশম।

বাতাসে বা শূণ্যে ভ্রমণ করিতেছে বা উড়িতেছে এরূপ অনুভূতি।

গলাধঃকরণ বেদনাদায়ক, বেদনা কর্ণ পর্যন্ত বিস্তৃত হয়। ডিপথেরিয়া ও টনসিলাইটিস পুনঃ পুনঃ একদিক হইতে অন্যদিকে পরিবর্তিত হইতে থাকে।

চমৎকার কার্যকারীতাঃ

নাসিকার ক্ষত– ঘা দুর্গন্ধ মামড়ি পড়া। আজ বাম নাকে বেশী, কাল ডান নাকে বেশী আবার আজ ডান নাকে কাল বাম নাকে বেশী এই ভাবে পর পর পর্যায়ক্রমে আক্রান্ত হইলে এই ঔষধে উপকার হয়।

স্ত্রী পীড়া– শ্বেতপ্রদর কেবল দিনে, রং হলদে বা সাদা, হাজিয়া যায় না, ঋতুস্রাব খুব শীঘ্র শীঘ্র এবং পরিমাণে অধিক ও দমকা নির্গত হয়, ঋতুস্রাবের পূর্বে স্তনে অত্যন্ত বেদনা, কিন্তুু ঋতুস্রাব আরম্ভ হইলে সেই বেদনার হ্রাস হয়,স্তনের বোটায় প্রদাহ ও বেদনা, একটুমাত্র ঝাঁকি লাগিলেই প্রাণ  বাহির হইয়া যায়। ল্যাক ক্যানের রোগিণীর জননেন্দ্রিয় প্রদেশ সামান্য স্পর্শে কাম ভাব জাগরিত হয়।

বাত- বাতের বেদনা শরীরের এক স্থান হতে অন্য স্থানে পরিচালিত হইলে কেলি বাইক্রম ও পালসেটিলা উপযোগী। কিন্তুু ল্যাক ক্যানিনামের ন্যায় বেদনা ডানদিকের উপরিভাগে, কাল বাম দিকেের নিম্নভাগে, আজ বামদিকে কাল ডানদিকে এরূপ আড়াআড়ি বেদনা উহাদের মধ্যে নাই।

পানাহার– ক্ষুধার যথেষ্ট প্রভাব লক্ষিত হয়। চর্বি বা তৈলাক্ত খাদ্যে ইহার যথেষ্ট অভিলাষ থাকে। কিন্তু দুধের প্রতি অতিশয় স্পৃহা বর্তমান থাকায় প্রচুর পরিমাণে দুগ্ধপান , ইহার রোগীর একটা অভ্যাসে পরিণত হইয়া দাঁড়ায়।

বধিরতা- উপদংশ পীড়াদুষ্ট পিতামাতার সন্তানদের বধিরতার  ইহা শ্রেষ্ঠ ঔষধ।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।